‘ওমানে দাফনের ও সুযোগ থাকবেনা’

ক্যাটাগরি: আন্তর্জাতিক, প্রবাস, শিরোনাম, সর্বশেষ-সংবাদ

Posted: March 22, 2020 at 1:11 pm

'ওমানে দাফনের ও সুযোগ থাকবেনা'-Digital Khobor

ওমানে প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। মরনব্যাধী করোনার সংক্রমণ থেকে ওমানে বসবাসরত সবাইকে সুরক্ষার জন্য দেশটির সরকার নানা পদক্ষেপ নিলেও তা মানছেন না কিছু প্রবাসী। বিশেষকরে দেশটির কিছু বাংলাদেশী প্রবাসীরা এখনো মানছেনা দেশটির সরকারের নির্দেশনা। ওমানের বাঙ্গালি অধ্যুষিত এলাকা মাস্কাটের হামরিয়া অঞ্চলে এখনো প্রবাসীরা বাহিরে আগের মতো আড্ডাদিচ্ছে ও ভিড় জমাচ্ছে। গতকালের এক ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, দেশটির এক টেলিভিশন সাংবাদিক হামরিয়াতে বাংলাদেশীদের করোনার এই সময়ে বাহিরে বের হওয়া এবং জনসমাগমের ভয়াবহতা বুঝাচ্ছেন। তখনও দেখা যাচ্ছে সেখানে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি প্রবাসী ভিড় করে আছেন।

গতকাল দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ গোলাম সরওয়ার ওমান প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে এক ভিডিও বার্তায় প্রবাসীদের এই মুহূর্তে অতি জরুরী প্রয়োজন ব্যতীত বাহিরে বের হতে নিষেধ করেছেন। তিনি ওমান প্রবাসীদের অনুরোধ করেছেন দেশটির সরকারের সকল আইন মেনে চলার।

এদিকে আব্দুস সাত্তার নামে এক ওমান প্রবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে বলেন, ওমানে বারবার সোশ্যাল মিডিয়াতে এবং দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে বলা হয়েছে, জরুরী কাজ ছাড়া ঘরের বাইরে না যাইতে। দেশটির এই আইন পাকিস্তানি ও ইন্ডিয়ান প্রবাসীরা মেনে চললেও ব্যতিক্রম দেখাযাচ্ছে বাংলাদেশী প্রবাসীদের। যেখানেই যাই দেখি শুধু বাঙ্গালীদের বড় জমায়েত। দুঃখজনক ব্যাপার! আজ আমাদের কিছু বাংলাদেশীর কারণে বিদেশের মাটিতে গোটা বাংলাদেশী প্রবাসীদের বদনাম হচ্ছে।

দেশটির আইন প্রয়োগকারী সংস্থা থেকে বলা হয়েছে, আজ থেকে যদি কেউ একান্ত প্রয়োজন ব্যতীত বাহিরে ঘুরাফেরা করে, তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে দেশটির পুলিশ। করোনাভাইরাস নিয়ে সকল গবেষকরা বলছেন, এই ভাইরাস জনসমাগমের মাধ্যমে ছড়ায়। যেহেতু এটি একটি সংক্রামনীত ভাইরাস, তাই এর থেকে রক্ষা পেতে প্রথম করনীয় হচ্ছে জনসমাগম এড়িয়ে সম্পূর্ণ আলাদা থাকা। যে কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মসজিদে নামাজ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এমনকি মুসলিম জাতীর সবচেয়ে পবিত্রতম স্থান পবিত্র মক্কা ও মদিনাতেও জুমার নামাজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এমন জরুরী অবস্থাতেও কিছু বাংলাদেশী বাহিরে ঘুরাফেরা করছেন এবং জমায়েত করছেন, তাদের জন্য কঠিন হুমকির মুখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

করোনার ব্যাপারে এক টেলিভিশন সাক্ষাতকারে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, লাশ রাস্তায় পড়ে থাকবে, কেউ টাচ ও করবেনা! এ ব্যাপারে এক ওমান প্রবাসী বলেন, এখনো যদি আমরা সচেতন না হই, এভাবে জনসমাগম করলে এমন একটা সময় আসবে ওমানে আমাদের লাশ মাটি দেওয়ারও যায়গা খুঁজে পাওয়া যাবেনা। ওমানে বসবাসরত সচেতন বাংলাদেশী প্রবাসীরা সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন, ওমান সরকারের সকল নির্দেশনা যথাযথ মেনে চলার জন্য। সেইসাথে বিদেশের মাটিতে গুটিকয়েক বাংলাদেশীর জন্য দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ না হয়, সেইদিকে সবাইকে লক্ষ রাখার বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ 

ad

spellbitsoft

YOUTUBE-DIGITAL-KHOBOR

আর্কাইভ

%d bloggers like this: