চট্টগ্রামে সৌর বিদ্যুকেন্দ্র নির্মাণ করবে মেটিটো গ্রুপ

ক্যাটাগরি: অর্থ-বানিজ্য, জাতীয়, শিরোনাম, সর্বশেষ-সংবাদ

Posted: January 14, 2020 at 3:17 pm

চট্টগ্রামে সৌর বিদ্যুকেন্দ্র নির্মাণ করবে মেটিটো গ্রুপ-Digital Khobor

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়াতে ৫৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করতে যাচ্ছে বহুজাতিক কোম্পানি মেটিটো। সর্বনিম্ন দরদাতা এবং কারিগরি বিবেচনায় এ প্রকল্প বাস্তবায়নে মেটিটো, আল জোমাইহ এবং জিনকো পাওয়ারের সমন্বয়ে গঠিত কনসোর্টিয়ামকে নির্বাচন করেছে সরকার। সুষম জ্বালানি মিশ্রণ নিশ্চিত এবং পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে পরিচ্ছন্ন জ্বালানির এ কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। ২০ বছর মেয়াদে কেন্দ্রটি নির্মাণ, মালিকানা ও পরিচালনা করবে এ কনসোর্টিয়াম।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিদ্যুৎ বিভাগের অনুমোদন ক্রমে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) চলতি সপ্তাহে প্রকল্পটি মেটিটোর অনুকূলে প্রকল্পটির অনুমোদন দিয়েছে।
প্রকল্পটির আওতায় উৎপাদিত প্রতি ইউনিট (কিলোওয়াট) বিদ্যুতের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ০.০৭৪৮ মার্কিন ডলার। এটি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে নির্মিত ও নির্মাণাধীন সৌর প্রকল্পগুলোর মধ্যে সর্বনিম্ন দর। শর্ত অনুযায়ী, চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার চন্দ্রঘোনায় বিশ্বমানের প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মাণ করবে মেটিটো। জমি প্রদান করবে বিপিডিবি। আগামী বছরের দ্বিতীয়ার্ধে কেন্দ্রটি উৎপাদন শুরু করতে পারবে। চন্দ্রঘোনা ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড সাব-স্টেশনের মাধ্যমে কেন্দ্রটির বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে।

পানি ব্যবস্থাপনা সল্যুশন খাতে ৬০ বছরের বেশি সময় ধরে বিশ্বব্যাপী কাজ করছে আরব আমিরাত-ভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানি মেটিটো। ডিজাইন ও বিল্ডিং, রাসায়নিক এবং ইউটিলিটিজ- এ তিনটি খাতে দীর্ঘ অভিজ্ঞতা রয়েছে কোম্পানিটির। পানি-ব্যবস্থাপনা ও জলবিদ্যুতের পাশাপাশি মেটিটো সম্প্রতি পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের ভিত্তিতে বিকল্প জ্বালানি শক্তি, সৌর বিদ্যুৎ, বায়ু বিদ্যুৎ এবং বর্জ্য থেকে জ্বালানি উৎপাদনে বিশেষ নজর দিয়েছে। রাঙ্গুনিয়া বিদ্যুৎ-কেন্দ্রটি বাংলাদেশে মেটিটোর জন্য প্রথম প্রকল্প।

মেটিটো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক র‌্যামি গ্যানডো বলেন, “বাংলাদেশে প্রগতিশীল নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে। বিকল্প বা নবায়নযোগ্য জ্বালানির এ ধরণের প্রকল্প টেকসই সমাধান এনে দেয়। এ প্রকল্প এগিয়ে নেয়ার পদক্ষেপ সেই দূরদর্শী নেতৃত্বের পরিচায়ক। প্রকল্পটি বাস্তবায়নের অংশীদার হতে পেরে আমরা আনন্দিত। অদম্য এ কনসোর্টিয়ামের সবগুলো প্রতিষ্ঠানের রয়েছে অপূর্ব দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা যার মাধ্যমে প্রকল্পটি সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করে বাস্তবায়িত হবে। বিপিডিবির সঙ্গী হিসেবে প্রকল্পটি সাফল্যের সঙ্গে বাস্তবায়নের ব্যপারে আমরা আশাবাদী।”

বিশ্বজুড়ে জিনকো পাওয়ার স্বতন্ত্র প্রতিযোগিতামূলক সৌর শক্তি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিত। গোটা বিশ্বে সৌর শক্তিকে টেকসই এবং সাশ্রয়ী মূল্যের উৎস হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিকাশ, গঠন, অর্থায়ন, মালিকানা এবং পরিচালনা করে আসছে। ২০১৯ সালের নাগাদ জিনকো পাওয়ার বিশ্বব্যাপী ৩৫০ টিরও বেশি সৌর পিভি প্রকল্পের মালিক এবং অপারেটর। এর মধ্যে শুধু চীনেই রয়েছে ৩ দশমিক ৪ গিগাওয়াট সৌর পিভি প্রকল্প। জিনকো বিশ্বের বৃহত্তম সৌর পিভি ১.৭৭ গিগাওয়াট ক্ষমতার সুইহান কেন্দ্রের মালিক এবং অপারেটর। রাঙ্গুনিয়া কেন্দ্রটি সাবলীল ও দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনার জন্য কারিগরি ও অপারেশনাল সহায়তা দেবে কোম্পানিটি।

আল জোমাইহ এনার্জি অ্যান্ড ওয়াটার (এইডাব্লিউ) হলো আল জোমাইহ হোল্ডিং কোম্পানির প্রধান অংশ। এটি সৌদি আরবের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান। মোটর গাড়ি বিক্রয় থেকে শুরু করে পরিষেবা, স্পেয়ার পার্টস এবং লুব্রিক্যান্ট তাদের ব্যবসায়িক বিস্তার রয়েছে। এশিয়া, আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যে বড় আকারের বিদ্যুৎ এবং পানি সম্পদ প্রকল্প বাস্তবায়নে নিয়োজিত রয়েছে এইডাব্লিউ।

 

ডিজিটাল ডেস্ক 

spellbitsoft

YOUTUBE-DIGITAL-KHOBOR

আর্কাইভ

January 2020
SSMTWTF
« Dec  
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
%d bloggers like this: